আত্মভোলা

-মুনিমা মান্নান শৈলী

স্মৃতির ডায়রিটা আজও পরে আছে ঘরের কোণে,
দক্ষিণের জানালাটা আজও খোলা।
চালতা ফুলের স্নিগ্ধ গন্ধ এখনও সারা ঘর জুড়ে,
কিন্তু আমি আর আজ নই আত্মভোলা।

ভুলো মন ছিল আমার,
থাকতো না কিছুই মনে,
তুমি এসে কড়া নাড়তে দরজায়
ঘুম ভাঙ্গতো আমার, তোমার স্নিগ্ধতায়-
তুমি ছিলে আমার পথচলা।
বিরক্তির রেখা একে তুমি মনে করিয়ে দিতে-
আজ যে যেতে হবে বহুদূর!
ভুলোমনা আমি সবই যেতাম ভুলে,
কিন্তু আজ আর আমি নই আত্মভোলা।

আমার উদাসীনতাই হবে কাল তোমার-
বুঝিনি কখনও আমি
কত ভালোবেসেছ তুমি,
কত ছিল তোমার ভালোবাসা।
পারতাম না করতে উপলব্ধি কিছুই তখন
সবই ছিল আমার কাছে ছেলেখেলা।
তাইতো তুমি কতদিন বকেছ আমায়,
কিন্তু সত্যিই!
আজ আর আমি নই আত্মভোলা।

তোমার কবরের পাশে আমি লাগিয়েছি চালতা গাছ!
শত শত ফুল ফোটে সেখানে
লেপে দেয় তোমার কবরে আলপনা।
চোখের জলে ভিজে মন,
ভাবি নিজেকে অপরাধী
কিছুই তো নেই আমার,
কিছুই নেই করার-
শূন্যতাই আঁকড়ে ধরে নিয়ে বেঁচে থাকা একবুক জ্বালা।
আজ আমি সত্যিই তোমাকে বাসি ভালো-
তুমি কি শুনতে পাচ্ছ ?
আজ কিন্তু আমি আর নই আত্মভোলা।